ঈদের আনন্দ নেই সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশিদের

করোনা ভাইরাসের কারণে বেকারত্ব ও টানা লকডাউনে ঘরবন্দি সৌদি আরবে থাকা প্রায় ২২ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি। আর কয়েকদিন পরই মুসলিম সম্প্রদায়ের বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদুল ফিতর। কিন্তু বৈশ্বিক এ মহামারীর ছোবলে এবার প্রবাসীদের মনে কোনো আনন্দ-উদ্দীপনা নেই, নেই উৎসব করার প্রস্তুতি।

সৌদি আরবে এবারের ঈদটা হবে একেবারেই ভিন্ন রকম। ঈদকে সামনে রেখে করোনা প্রতিরোধে আগামীকাল ২৩ মে থেকে ২৭ মে পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার। এদিকে করোনার কারণে কর্মহীন হয়ে দিন পার করছে ২২ লাখ প্রবাসী বাংলাদেশি। লকডাউন চলাকালে কিছু সময় অনেকের কাজ চললেও বেতন পাননি। বন্ধ রয়েছে দেশটির ছোট-বড় অনেক কোম্পানি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। একদিকে চলছে নিজেদের উৎসববিহীন ঈদ প্রস্তুতি; অন্যদিকে বাড়ছে পরিবারের জন্য কিছু টাকা পাঠানোর তাড়না।

আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে কয়েক সৌদি প্রবাসী বাংলাদেশির সাথে কথা বলেন এই প্রতিবেদক। এর মধ্যে মক্কা প্রবাসী নাজিম উদ্দিন বাবুল বলেন, প্রতিবছর ঈদকে ঘিরে পরিবারের জন্য যে পরিমাণ টাকা পাঠাতাম, এবার তার তিনভাগের একভাগও দিতে পারছি না। লকডাউনের কারণে বাসায় দুমাস ধরে বন্দি হয়ে আছি। খেয়ে না খেয়ে অনেকে রোজা পালন করছি। এমন পরিস্থিতিতে যে পড়তে হবে- তা আমরা কোনোদিন ভাবিনি।

তায়েফ প্রবাসী সাহেদুল আলম সাহেদ জানান, করোনায় কমে গেছে আয়। এমন পরিস্থিতির মধ্য দিয়েও পরিবারের জন্য যতটুকু সম্ভব ঈদের জন্য টাকা পাঠিয়েছি। অনেকটা একই সুরে বলেন কামিস মোসায়েত প্রবাসী এম সালাহ উদ্দিন। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকারের দৃষ্টি দেওয়া প্রয়োজন বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *