মাদক ব্যবসার বিরোধীতা করায় সন্ত্রাসীদের হামলা

আনিচুর রহমান , ফরিদপুর : ফরিদপুর জেলার ভাংগা থানার নুরুল্লাগঞ্জ ইউনিয়নে দীর্ঘদিন ধরে মাদক চক্রের অভয়ারন্যে পরিনত হয়েছে। উঠতি বয়সের তরুনরা মাদকের করাল থাবায় আক্রান্ত। এলাকায় বেড়েছে সন্ত্রাসী কার্যকলাপ। গত ৫ জুন শুক্রবার রাতে মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় কথিত মাদকব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীরা হামলা করে মারাত্বক আহত করেন ফিরোজ মাতুব্বরকে।
প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় এলাকাবাসী সাংবাদিকদের জানান দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাকে প্রানে মেরে ফেলার চেষ্টায় প্রকাশ্যে স্থানীয় বখাটে ও মাদক ব্যবসায়ী সোহাগ , রাব্বি , পিতা : বাদশা ,মাহাবুব,পিতা : ফারুক, শাকিল, পিতা : সালাম এ হামলা চালায়। তার চিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে সদরপুর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
এলাকা সূত্রে জানাযায় দীর্ঘদিন ধরে সোহাগ, রাব্বি,মাহাবুব,শাকিল গংরা এলাকায় মাদক ও চড়া সুদের ব্যবসা করছে। অত্র এলাকার একটি চক্র এসব উঠতি বয়সের তুরুনদেরকে নানান অপকর্ম এবং সন্ত্রাসী কাজে ব্যবহার করে। তাদের নানান অপকর্মে এলাকার সাধারন মানুষ অতিষ্ট।
হাসপাতাল সূত্রে জানা যায় সন্ত্রাসীদের হামলায় ফিরোজ মাতুব্বরের মাথায় ৫টি সেলাই লেগেছে। এ বিষয়ে ভাংগা থানার এস আই জাহাঙ্গির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
ঘটনাস্থল পরিদর্শক এস আই জাহাঙ্গির সাংবাদিকদের জানান , একটি ফয়তা অনুষ্ঠানে তর্কবিতর্ক হয় এক পর্যায়ে মারামারির ঘটনা ঘটে। ফিরোজ মাতুব্বর নামে একজন আহত হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবো।
এ বিষয়ে ভাংগা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: শফিকুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিবো।
এ ঘটনার বিষয়ে ভাংগা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে আহত ফিরোজ মাতুব্বরের পরিবার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *